তেল-গ্যাসের মুল্যবৃদ্ধিতে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হয়েছে : লেবার পার্টি

চ্যানেল ৯৬বিডি, ঢাকা : কেরোসিন, ডিজেল, জ্বালানী তেল ও এলপি গ্যাসের দাম অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশ লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডাঃ মোস্তাফিজুর রহমান ইরান ও ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব লায়ন ফারুক রহমান বলেন, জনস্বার্থকে উপেক্ষা করে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধিসহ দফায় দফায় বিদ্যুৎ, গ্যাস ও জ্বালানী তেলের দাম বৃদ্ধি করা হয়েছে।

এতে ধনী গরীবের শ্রেনী বৈসাম্য প্রকট আকার ধারন করছে। সরকারের দুর্নীতি, লুটপাট ও অর্থপাচারের কারনে অর্থনীতি ধ্বংসস্তুপে পরিনত হয়েছে। ধনী ও লুটেরা শ্রেনী ধনী থেকে আরো ধনী হচ্ছে আর  শ্রমজীবী মেহনতি মানুষ সর্বহারা শ্রেনীতে পরিনত হয়েছে।

অবিলম্বে ডিজেল, কেরোসিন ও গ্যাসের দাম বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করতে হবে। তা না হলে জনদুর্ভোগে গণবিস্ফোরন তৈরী হবে।

রোববার লেবার পার্টির দফতর সম্পাদক আমানুল্লাহ মহব্বত সাক্ষরিত বিবৃতিতে বলেন, কেরোসিন ও ডিজেলের দাম শতকরা ২৩ ভাগ বৃদ্ধি করে ৬৫ টাকা থেকে ৮০ টাকা পূণ:নির্ধারণ করা হয়েছে। এলপি গ্যাসের দাম ৪.২৯ শতাংশ বৃদ্ধি করে ১২ কেজির মূল ১২৫৯ টাকা থেকে ১৩১৩ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এলপি গ্যাসের মূল্য গত ৪ মাসে ৪৭.৩৬ শতাংশ বাড়ানো হলো। গত জুলাই মাসে মূল্য ছিল ৮৯১ টাকা।

দফায় দফায় মূল্যবৃদ্ধির কারনে জাতীয় অর্থনীতি ও জনজীবনে বিরুপ প্রভাব সৃষ্টি হয়েছে। ডিজেল, কেরোসিন ও এলপি গ্যাসের মূল্য বাড়ায় জনজীবনে মূল্যস্ফীতির চাপ বৃদ্ধির পাশাপশি সেচ পরিবহনসহ সামগ্রিক ব্যয় অসহনীয়ভাবে বেড়েগেছে।

এতে জনজীবনে দুর্গতি আর একধাপ বেড়েগেছে। জিনিসপত্রের দাম বৃদ্ধির কারনে অর্থনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব পরেছে এবং মধ্যম ও নিন্ম আয়ের মানুষ ভয়ানক দূর্ভোগ তৈরী করেছে।

নেতৃদ্বয় বলেন, যেখানে ভারতে জ্বালানি তেলের দাম কমানো হয়েছে অথচ বাংলাদেশে এর দাম দ্বিগুন করা হয়েছে যাতে ক্ষমতাসীনরা জনগণের টাকা লুটপাট করে আগের মতই বিদেশে পাচার করতে পারে।

এখন ভর্তুকি কমাতে জ্বালানীর দাম বৃদ্ধি করা হয়েছে, এতে জনগণের পকেট কাটা থামবে না বরং আরো অত্যুগ্র মাত্রায় বৃদ্ধি পাবে। এই দাম বৃদ্ধির দুর্বিষহ প্রভাব অর্থনীতির সব খাতে পড়বে।

ভোটারবিহীন সরকারের জনগণের কাছে জবাবদিহি করতে হয়না বলেই জনমতকে উপেক্ষা করে ডিজেল, কেরোসিন ও এলপি গ্যাসের মুল্য অস্বাভাবিক হারে বৃদ্ধি করা হয়েছে। এ

মনিতেই বর্তমানে চাল, ডাল, আটা, চিনি, ভোজ্য তেল ও রান্নার গ্যাসের দাম দ্বিগুন বৃদ্ধিতে স্বল্প আয়ের মানুষের জীবন এখন ত্রাহি ত্রাহি অবস্থা। তারা সংসার চালাতে হিমশিম খাচ্ছে। জ্বালানী তেলের দাম বৃদ্ধি কৃষি ও শিল্পে নেতিবাচক প্রভাব পড়বে এবং নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম লাগামহীন ভাবে বাড়বে। প্রেস বিজ্ঞপ্তি