ডিআরইউর সেরা রিপোর্টিং পুরস্কার পেলেন ২২ সাংবাদিক

চ্যানেল ৯৬বিডি.কম, ঢাকা : এ বছর ২২ সাংবাদিক পেয়েছেন ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সেরা রিপোর্টিং অ্যাওয়ার্ড ।

২২টি ক্যাটাগরিতে ‘নগদ-ডিআরইউ বেস্ট রিপোর্টিং অ্যাওয়ার্ড ২০২১’দেয়া হয়। এদের মধ্যে প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার ১৩ জন এবং টেলিভিশন ও রেডিও সাংবাদিকতায় ৯ জন পুরস্কার পেয়েছেন।

মঙ্গলবার রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে প্রধান অতিথি হিসেবে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বিজয়ীদের হাতে ক্রেস্ট, সনদ ও নগদ ৭৫ হাজার টাকার চেক তুলে দেন।

প্রিন্ট ও অনলাইন ক্যাটাগরিতে বিজয়ীরা হলেন- সমকালের আবু সালেহ রনি, দ্য বিজনেস স্ট্যান্ডার্ডের আব্বাস উদ্দিন নয়ন ও জেবুন নেসা আলো, ডেইলি স্টারের একেএম রাশিদুল হাসান, দৈনিক প্রথম আলোর রোজিনা ইসলাম, আসাদুজ্জামান (ওবায়েদ অংশুমান) ও নাজনীন আখতার, দৈনিক আমাদের সময়ের মোঃ কবির হোসেন, ঢাকা পোস্টের মোঃ জোবায়ের হোসেন (আরাফাত জোবায়ের), বাংলা ট্রিবিউনের মোঃ শাহেদুল ইসলাম (শাহেদ শফিক), দৈনিক যুগান্তরের এসএএম হামিদ-উজ-জামান (হামিদ-উজ-জামান), দৈনিক কালের কণ্ঠের জিয়াদুল ইসলাম ও দৈনিক সময়ের আলোর রফিকুল ইসলাম সবুজ।

টেলিভিশন ও রেডিও ক্যাটাগরিতে বিজয়ীরা হলেন- যমুনা টিভির সুশান্ত সিনহা ও আবু সালেহ মোঃ পারভেজ সাজ্জাদ (সাজ্জাদ পারভেজ), একাত্তর টেলিভিশনের কাবেরী মৈত্রেয় ও মোঃ আদনান খান (নয়ন আদিত্য), মাছরাঙ্গা টেলিভিশনের মোঃ মাজহারুল ইসলা ও কাওসার সোহেলী, নাগরিক টিভির শাজনাজ শারমিন, চ্যানেল ২৪ এর সাদমান সাকিব ও এনটিভির শফিক শাহীন।

অনুষ্ঠানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘নেতিবাচক, বানোয়াট সংবাদ ও প্রপাগান্ডা’ রুখতে সাংবাদিকদের সঠিক তথ্য সরবরাহ করার আহ্বান জানান স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী।

তিনি বলেন, আমাদের মনে রাখতে হবে দায়িত্বশীল ও নৈতিকতা পূর্ণ সাংবাদিকতা এখন জরুরি। ফেইসবুকে পোস্ট দিয়ে নাশকতা ঘটানো হচ্ছে‌। তা প্রতিরোধ করার বিষয়টি আমাদের ভাবতে হবে। এজন্য প্রয়োজন উপযুক্ত সাংবাদিকতা।

স্পিকার বলেন, ২০০৮ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন। তারই ফলশ্রুতিতে আমরা করোনাকালে ডিজিটাল বাংলাদেশের মাধ্যমে সবার সঙ্গে সংযুক্ত থেকেছি ভার্চুয়ালি।

তিনি আরও বলেন, এখন অবাধে সংবাদ প্রচার করা যাচ্ছে। চলমান ঘটনাকে তুলে ধরছেন সাংবাদিকরা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কারণে অনেক নতুন বিষয় চ্যালেঞ্জ হিসেবে আবির্ভূত হচ্ছে বলে আমি মনে করি‌।

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) সদস্যদের পেশাগত কাজের স্বীকৃতি হিসেবে প্রতি বছর বিভিন্ন বিষয়ে সেরা রিপোর্টিংয়ের জন্য পুরস্কার দিয়ে থাকে। এবছর ডিআরইউ এর এই আয়োজনে যুক্ত হয়েছে মোবাইলে আর্থিক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান ‘নগদ’।

অনুষ্ঠানে নগদের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর এ মিশুক বলেন, একটি ভালো রিপোর্টের মাধ্যমে সমাজ ও রাষ্ট্রের অনেক জনগুরুত্বপূর্ণ বিষয় সামনে চলে আসে, যা আসলে সমাজ বদলের হাতিয়ার হিসেবেও কাজ করে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি বক্তব্য রাখেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

ডিআরইউ সভাপতি মুরসালিন নোমানীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন অ্যাওয়ার্ড কমিটির জুরি বোর্ডের চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ জার্নালের সম্পাদক শাহজাহান সরদার, নগদের নির্বাহী পরিচালক নিয়াজ মোর্শেদ এলিট, ডিআরইউ সাধারণ সম্পাদক মসিউর রহমান খান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জুরি বোর্ডের সদস্য ও টিভি টুডের এডিটর ইন চিফ মনজুরুল আহসান বুলবুল, নিউ নেশনের এডিটর ইন চার্জ মোস্তফা কামাল মজুমদার, সমকালের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মুস্তাফিজ শফি, ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরামের সাবেক সভাপতি মনোয়ার হোসেনসহ অনেকে।