উত্তাল সাগর, ভাসছে উপকূল

চ্যানেল ৯৬বিডি.কম,

৯৬বিডি ডেস্ক : দেশের উপকূলীয় অঞ্চলগুলোতে বৈরী আবহাওয়া বিরাজ করছে। উত্তাল হয়ে উঠেছে বঙ্গোপসাগর। উপকূলীয় এলাকার নদ-নদীতে স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে কয়েক ফুট পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। উপকূল সংলগ্ন বিভিন্ন স্থানে ঘরবাড়ি-রাস্তাঘাটে পানি উঠছে। পানিবন্দি হয়ে পড়ছে হাজার হাজার মানুষ।  বিভিন্ন জেলার খবর-

বাগেরহাট : ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াসের’প্রভাবে জোয়ারের পানি স্বাভাবিকের চেয়ে কয়েক ফুট বেশি উচ্চতায় উঠে উপকূলে আছড়ে পড়ছে। বাগেরহাটে ইয়াসের প্রভাবে মঙ্গলবার সকাল থেকে আকাশ মেঘাচ্ছন্নসহ গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি পড়ছে। সকাল থেকেই শরণখোলার বলেশ্বর, মোরেলগঞ্জের পানগুছি, মোংলার পশুর, বাগেরহাটের ভৈরব, দড়াটানাসহ সব নদীর পানি স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে এক থেকে দেড় ফুট বেড়েছে।

ভোলা : ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াস’র প্রভাবে গতকাল রাত থেকে দ্বীপজেলা ভোলায় বৈরী আবহাওয়া বিরাজ করছে। উত্তাল হয়ে উঠেছে উপকূলীয় এলাকার নদ-নদী। স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে তিন থেকে চার ফুট পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। মঙ্গলবার সকাল থেকে ভোলার সর্ব দক্ষিণের চরফ্যাশন উপজেলার বিচ্ছিন্ন চর ইউনিয়ন ঢালচর ও চরকুকরি মুকরি ইউনিয়ন চার থেকে পাঁচ ফুট পানিতে প্লাবিত হয়েছে। এতে করে দুই ইউনিয়নের প্রায় ১৫ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

পটুয়াখালী : ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে পটুয়াখালী সংলগ্ন বঙ্গোপসাগর বেশ উত্তাল রয়েছে। বাতাসের গতিবেগ অনেকটা বৃদ্ধি পেয়েছে। পটুয়াখালী উপকূলে থেমে থেমে হালকা ও মাঝারি বৃষ্টিপাত হচ্ছে। জেলার কলাপাড়া, রাঙ্গাবালী ও গলাচিপা এলাকায় স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৩ থেকে ৪ ফুট পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। হু হু করে পানি ঢুকছে লোকালয়ে । দেবপুর বেড়িবাঁধ ভেঙে দেবপুর, লোন্দা, ধানখালী ও পাঁচজুনিয়া গ্রামের পাঁচ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। এছাড়া নিশান বাড়িয় বেড়িবাঁধ টপকে পানি প্রবেশ করেছে।

সাতক্ষীরা : বঙ্গোপসাগরের সৃষ্ট সুাপার সাইক্লোন ইয়াস ক্রমেই সাতক্ষীরার উপকূলে ধেয়ে আসছে। দুপুর থেকে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির সাথে দমকা হাওয়া বইতে শুরু করেছে। সুন্দরবন সংলগ্ন শ্যামনগর ও আশাশুনির কপোতাক্ষ নদ ও খোলপেটুয়া নদীসহ উপকূলের সকল নদ-নদীর জোয়ারের পানি স্বাভাবিকের চেয়ে ২ থেকে ৩ ফুট বৃদ্বি পেয়েছে। কপোতাক্ষ নদের বাঁধ ছাপিয়ে হু হু করে পানি  এলাকায়  প্রবেশ করে। ফলে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। গাবুরা, বুড়িগোয়ালিনী, গাবুরা, মুন্সিগঞ্জ ও পদ্মপুকুরের পানি উন্নয়ন বোর্ডের ২৭ কিলোমিটার বেড়িবাঁধের ৪৩টি পয়েন্টে ভয়াবহ ভাঙন ও ফাঁটল দেখা দিয়েছে।

বরিশাল : ইতিমধ্যে ‘ইয়াস’ এর প্রভাবে বরিশাল বিভাগীয় অঞ্চল পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী ও গলাচিপা এলাকায় স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৩ থেকে ৪ ফুট পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। ধীরে ধীরে প্রভাব পড়ছে বরিশালেও। জেলার কীর্তনখোলা নদীসহ আশপাশের এলাকার সকল নদীর পানি স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে কিছুটা বেড়েছে।

কক্সবাজার : ইয়াস এর প্রভাবে কক্সবাজার জেলার বিস্তীর্ণ উপকূলীয় বেড়িবাঁধের ক্ষতি হচ্ছে। টেকনাফ থেকে কুতুবদিয়া পর্যন্ত বিভিন্ন এলাকায় ভেঙে গেছে বেড়িবাঁধের অংশ। বেড়িবাঁধ দিয়ে পানি ঢুকে  বিস্তীর্ণ জনবসতি জোয়ারে তলীয়ে গেছে।