সন্দেহপ্রবণ মানুষের আয়ু কম!

চ্যানেল ৯৬বিডি.কম,

ফিচার ডেস্ক : যারা সেন্দহপ্রবণ তারা বেশীদিন বাঁচেন না। এমন তথ্যই উঠে এসেছে গবেষণায়। সমাজে এমন কিছু মানুষ রয়েছেন যারা একটু সন্দেহপ্রবণ। তুচ্ছ কারণে তারা অন্যদের সন্দেহ করেন। অতিরিক্ত সন্দেহের কারণে বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হতে দেখা যায় এসব মানুষকে।

সম্প্রতি এক গবেষণায় এমন তথ্যই জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের গবেষকরা। দেশটির ২৪ হাজার মানুষের ওপর করা গবেষণায় তারা বলেন, সন্দেহপ্রবণ মানুষের আয়ু দীর্ঘ হয় না। গবেষণা প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, যারা অন্য মানুষকে সন্দেহ করেন তাদের মস্তিষ্কে সবসময় ভুল বা নেতিবাচক চিন্তা ঘুরপাক খায়। ফলে তাদের মনে সেসব চিন্তার প্রভাব পড়ে এবং তারা প্রায়ই মাথা ব্যথা, উচ্চ রক্তচাপ ও হৃদরোগে আক্রান্ত হন।

গবেষকরা বলেন, বৃদ্ধ বয়সে হারানোর ভয় না থাকার কারণে মানুষ অনেক আশাবাদী হন। যারা অন্য মানুষকে ক্ষমা ও মূল্যায়ন করেন তাদের হৃদযন্ত্র অনেক দিন অবধি ভালো থাকে। তবে গবেষণায় আরও উঠে আসে, যারা অন্যদের সন্দেহ করেন এবং সহজে ক্ষমা করতে চান না তারা দীর্ঘজীবী হন না।

যেসব মানুষের ওপর গবেষণাটি চালানো হয় সেসব মানুষের ৩৭ ভাগ অন্যদের সন্দেহ করেন না, ৫৭ ভাগ অন্যদের সন্দেহ করেন ও ৫ ভাগ কোনো উত্তর দিতে চাননি। দেশটির কয়েকজন মৃত ব্যক্তিকে নিয়ে গবেষণা করে দেখা যায় জীবদ্দশায় যারা ইতিবাচক চিন্তা ও অন্যদের ক্ষমা করতেন তাদের আয়ুষ্কাল ছিল দীর্ঘ। অন্যদিকে যেসব মানুষ অন্যদের সন্দেহ বা বাঁকা চোখে দেখতেন, সেসব মানুষ বেশিদিন বাঁচেননি।

গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়, অন্যের প্রতি বিশ্বাস মানুষকে সহজভাবে চিন্তা করতে সাহায্য করে। ভালোভাবে জীবনযাপন করার জন্য এবং দীর্ঘায়ু পাওয়ার জন্য সন্দেহপ্রবণ মনোভাব থেকে নিজেকে দূরে রাখা প্রয়োজন।