বাংলাদেশের নাটকে কাজ করতে চান দর্শনা

চানেল ৯৬বিডি.কম,
বিনোদন ডেস্ক : মডেলিং দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করে ওপার বাংলা কাঁপাচ্ছেন টলিউডের মডেল-অভিনেত্রী লাস্যময়ী নায়িকা দর্শন বণিক। প্রথম সারির অভিনেত্রীদের মধ্যে স্টাইল ও ছকভাঙা অভিনয় দিয়ে নিজের জায়গাটা পাঁকিয়ে নিয়েছেন তিনি। টলি অভিনেত্রী দর্শনা বণিক বরাবরই গত বাঁধা ছক থেকে বেরিয়ে নিজের মত করে স্টাইলকে বেছে নিয়েছেন। বাংলা ছাড়াও দক্ষিণী ছবিতেও মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন। নতুন খবর হচ্ছে ওপার বাংলার টলি সুন্দরী ফের বাংলাদেশের সিনেমায় কাজ করতে যাচ্ছেন। নাম ‘অন্তরাত্মা’। এ দেশের শাকিব খানের বিপরীতে পর্দায় দেখা মিলবে দর্শনার। এ তথ্য ওপার বাংলা থেকে জানিয়েছেন তিনি। দর্শনা বলেন, ‘এটি ভিন্ন ধরনের গল্পের একটি ছবি। পাবনায় হবে চিত্রায়ণ। যেখানে সুচিত্রা সেনের জন্মস্থান। শাকিব খান ও আমি দুজনেই গুরুত্বপূর্ণ একটি চরিত্রে অভিনয় করছি। এ ছবি দিয়ে প্রথমবার তার সাথে অভিনয় করছি। বাংলাদেশের দর্শক নতুন কিছু পেতে যাচ্ছে। আশা করছি ভালো কিছু উপহার দিতে পারব। দর্শকদের হতাশ করব না।’ জানা গেছে, আসন্ন ঈদের জন্য ছবিটি নির্মিত হচ্ছে। মার্চের এক তারিখ থেকে পাবনায় দৃশ্য ধারণ শুরু হবে। ছবিটি পরিচালনা করছেন ওয়াজেদ আলী সুমন। এর আগে দর্শনা বাংলাদেশের ‘অপারেশন সুন্দরবন’ ছবিতে রোশানের বিপরীতে অভিনয় করেছেন। এই সিনেমায় একজন মেডিক্যাল অফিসারের ভূমিকায় দেখা যাবে। স্বাধীনতার পঞ্চশ বছর উপলক্ষে আগামী ২৬ মার্চ সিনেমাটি মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে। ছবিটি নিয়ে খুবই আশাবাদী দর্শনা। তার ভাষায়, ‘বড় একটি টিম অনেক দিন পরিশ্রম করে ছবিটি নির্মাণ করেছেন। এটি বাংলাদেশে আমার প্রথম ছবি। তাই আমার জন্য খুবই স্পেশাল। খুবই ভালো একটি ছবি পেতে যাচ্ছে দর্শক। ছবিটি দর্শক অনেক দিন মনে রাখবে।’ এ দেশের গানচিত্রেও দেখা গেছে দর্শনাকে। বাংলাদেশে নিয়মিত কাজ করতে চান তিনি। মাধ্যম কিংবা পর্দা বিষয় না ভালো চরিত্র পেলে বাংলাদেশে সরব থাকবেন দর্শনা। বাংলাদেশের নাটকে কাজ করার আগ্রহ আছে? ‘সত্যি কথা বলতে বাংলাদেশের নাটক নিয়মিত দেখি। এ দেশের নাটকের প্রতি আলাদা একটা ভাললাগা কাজ করে। তাই বাংলাদেশের নাটকে অভিনয় করার খুব আগ্রহ আছে।’ নাটকে দর্শনার প্রিয় অভিনেত্রী ছোটপর্দার বড় তারকা মেহজাবীন চৌধুরী, তানজিন তিশা, আফরান নিশো এবং অপূর্ব। সিয়াম আহমেদেরও বেশ কিছু নাটক দেখেছেন তিনি। ‘বাংলাদেশ ভীষণ ভাবে উন্নতি করছে। সাংস্কৃতি এবং বাংলা ভাষার প্রতি সবার ভালোবাসা অতুলনীয়। এ দেশ থেকে অনেক কিছু শেখার আছে।