কালকিনিতে ভোটের মাঠে উত্তাপ

চ্যানেল ৯৬বিডি.কম,

মাদারীপুর : ১৪ ফেব্রুয়ারি কালকিনি পৌরসভা নির্বাচন।  প্রচার প্রচারণায় জমজমাট পুরো নির্বাচনী এলাকা। প্রার্থীরা প্রতিনিয়ত যাচ্ছেন ভোটারদের দোড় গোড়ায়। প্রার্থীদের দৌড়ঝাপ আর ভোটারদের মধ্যে চলছে উত্তেজনা। লড়াই হবে হাড্ডাহাড্ডি এমন ভাবনা সবার। যদিও ঘটেছে একাধিক সংঘের্ষর ঘটনা। তারপরেও আশাবাদী নৌকার প্রার্থীসহ স্বতন্ত্রপ্রার্থীরা।

আওয়ামী লীগের দলিয় মনোনয়ন নিয়ে নৌকা প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সদস্য হানিফ সরদার।  জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী তিনি।

মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সোহেল রানা মিঠু। অপর স্বতন্ত্র প্রার্থী হলেন, কালকিনি উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মশিউর রহমান সবুজ।

মিঠু বলেন, কালকিনি পৌরসভার জনগণ  আমাকে নির্বাচনে দাঁড় করিয়েছে, জনগণের দাবি আমি  উপেক্ষা করতে পারি নি।

যদিও স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ায়, ইতিমধ্যেই মাদারীপুর জেলা আওয়ামীলীগ মিঠুকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক থেকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে।

অপর স্বতন্ত্র প্রার্থী হলেন, কালকিনি উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মশিউর রহমান সবুজ। সবুজকে নিয়ে ভুল বোঝাবুঝির জেরে গত শনিবার সংঘর্ষে প্রায় অর্থশত আহত হয়।

নিখোঁজ হওয়ার পর ফিরে এসে সবুজ জানান, ওইদিন তার নির্বাচনী প্রচারণার সময় কালকিনি থানার ওসি তাকে তার গাড়িতে এসপি অফিসে নিয়ে যায়। এসপি, সবুজের ইচ্ছের বিরুদ্ধে তাকে ঢাকায় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের কাছে নিয়ে যায়। ওবায়দুল কাদের তাকে নির্বাচন থেক সড়ে দাঁড়িয়ে আওয়ামীলীগ প্রার্থীর পক্ষে কাজ করতে বলেন। তখন সবুজ কালকিনির অবস্থা ব্যাখ্যা করে জনগণের মতামতকে শ্রদ্ধা করেন বলে জানান।

তিনি আরো জানান, তিনি এই মুহুর্তে আওয়ামীলগ বা আওয়ামীলীগের কোন অঙ্গসংগঠনের পোস্টে নাই।  তখন ওবায়দুল কাদের বলেন, তোমার যা ইচ্ছে তুমি করো।