কমছে নাটকের মান, বাড়ছে তারকাদের পারিশ্রমিক

চ্যানেল ৯৬বিডি.কম,
বিনোদন ডেস্ক : কয়েক বছর ধরে বেড়েছে ইউটিউবের জন্য নাটক নির্মাণ। বৃদ্ধি পাচ্ছে মানহীন নাটকের সংখ্যা। করোনা যেন মরার ওপর খাঁরার ঘা। এদিকে তারকাদের পারিশ্রমিক বাড়ানোর হিড়িক পড়েছে।

নতুন বছরের শুরুতে বেশ কয়েকজন শিল্পী তাদের পারিশ্রমিক বাড়িয়েছেন। তাদের মধ্যে রয়েছে তৌসিফ মাহবুব, ফারহান আহমেদ জোভান, তানজিন তিশা, সাবিলা নূর, সাফা কবির, মিশু সাব্বির, শামীম হাসানসহ একাধিক শিল্পী। করোনা মহামারীর মধ্যেই পারিশ্রমিক বাড়িয়েছেন জিয়াউল ফারুক অপূর্ব।

তৌসিফ একটি একক নাটকে অভিনয়ের জন্য পারিশ্রমিক নিতেন ৪০ হাজার টাকা। ২০২১ সাল থেকে এই অভিনেতা ২০ হাজার টাকা বাড়িয়ে ৬০ হাজার টাকা পারিশ্রমিক নেবেন।

জোভান আহমেদ প্রতিটি নাটকের জন্য গত বছর পর্যন্ত পারিশ্রমিক নিতেন ৪০ হাজার টাকা। নতুন বছরে জোভানকে নিতে হলে গুনতে হবে ১০ হাজার টাকা বেশি অর্থাৎ ৫০ হাজার টাকা। মহামারী করোনার মধ্যেই অপূর্ব ৭০ হাজার পারিশ্রমিক থেকে এক লাখ নিয়েছেন। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানও দিতে বাধ্য হয়।

একইভাবে মোশাররফ করিম, আফরান নিশো, মেহজাবীন চৌধুরীরও পারিশ্রমিক বেড়ে গেছে। ঈদুল আজহার পরই তাঁরা প্রায় লাখ টাকার মতো পারিশ্রমিক নিচ্ছেন। কাজের মানের চেয়ে পারিশ্রমিক বাড়ানোয় নজর দিচ্ছেন এসব শিল্পীরা। কাজ থেকে তাদের কাছে পারিশ্রমিকই মূখ্য।

কিছু অসাধু ব্যবসায়ী বাংলা নাটকের হাতে গোনা কজন অভিনয় শিল্পীর পারিশ্রমিক বাড়ানোর অসুস্থ প্রতিযোগীতায় নেমেছে। তারা বলছে, ইউটিউব চ্যানেল ভিউ বেশী আছে এমন অভিনয় শিল্পীদের পারিশ্রমিকই তারা বাড়াচ্ছে। কিন্তু বাস্তবতা হলো ইউটিউবে ওই বেশী পারিশ্রমিক নেয়া শিল্পীদের অনেকের নাটকেই এখন আর কাক্সিক্ষত ভিউজ হচ্ছে না।

ফলে আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়ছে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানগুলো। কিছু বছর আগে সঙ্গীত শিল্পীদের ঠিক এভাবেই পারিশ্রমিক বাড়িয়ে কিছু অডিও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শেষতক পুরো সেক্টরটাকেই ধ্বংস করে দিয়েছে। এবার ওই একই অপশক্তি বাংলা নাটক সেক্টরের বারোটা বাজাতে তৎপর।