দেশে রাজনীতি করার সুযোগ নেই : ফখরুল

চ্যানেল ৯৬বিডি ডটকম,

ঢাকা :দেশে রাজনীতি করার ন্যুনতম সুযোগ নেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। রোববার গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিবৃতিতে তিনি এ মন্তব্য করেন।সন্ত্রাসী রাজনীতি রুখতে পারলে নারী নেতৃত্বের বিকাশ ঘটবে

কিশোরগঞ্জ জেলাধীন ইটনা উপজেলার রায়টুটি ইউনিয়ন যুবদলের কর্মী সমাবেশের ওপর পুলিশ বেধড়ক লাঠিচার্জ ও নেতাকর্মীদেরকে আহত করে। পরবর্তীতে ১২০ জন নেতাকর্মীর নামোল্লেখ করে আরো অজ্ঞাত ৮০/৯০ জনের বিরুদ্ধে বানোয়াট মামলা দায়ের করে পুলিশ।

পুলিশী অভিযানের কারণে নেতাকর্মীরা বর্তমানে এলাকায় থাকতে পারছেন না। পুলিশের এই ধরণের ন্যক্কারজনক আচরণের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে’ এই বিবৃতি দেন ফখরুল।

মির্জা ফখরুল বলেন, ৩০ ডিসেম্বরের মধ্যরাতের মহাভোট ডাকাতির নির্বাচনের পর বর্তমান সরকারের দুঃশাসনের বিষবাস্প এখন যেন আরো ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে।

বিশ্বের গণধিকৃত সকল স্বৈরাচারকে টেক্কা দিয়ে জনসমর্থনহীন বর্তমান আওয়ামী সরকার অবর্ণনীয় দুঃশাসন জারি রেখে বিএনপি এবং বিরোধী দলগুলোর নেতাকর্মীসহ সাধারণ মানুষের জানমালের নিরাপত্তাকে এখন চরম হুমকির মুখে ঠেলে দিয়েছে।

তিনি বলেন, ৩০ ডিসেম্বর মহাসমারোহে মধ্যরাতে ভোট ডাকাতির পর সরকারের আশকারায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দেশব্যাপী বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর লাগামহীন হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় যুবদলের কর্মী সমাবেশের ওপর পুলিশ বেধড়ক লাঠিচার্জ ও নেতাকর্মীদেরকে আহত করাসহ মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে।

নেতাকর্মীদের ওপর পুলিশী হামলা ও মামলা দায়েরের ঘটনায় আবারো প্রমাণিত হলো- দেশে আইনের শাসন নেই, রাজনীতি করার ন্যুনতম সুযোগও নেই, এটি এখন দিবালোকের মতো স্পষ্ট।

বিএনপি মহাসচিব যুবদলের কর্মী সমাবেশের ওপর পুলিশী হামলা ও বানোয়াট মামলা দায়েরের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহারের জোর দাবি জানান।